“সিনিয়র গার্লফ্রেন্ড” শেষ পর্ব

প্রকাশিত: ৫:৩১ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১৫, ২০২০

হঠাৎ একটা ট্রাক এসে ভিষণ গতিতে ধাক্কা মারে,

আমি মরামরা অবস্থা, তিথি আর লিমা দৌরে এসে এ্যাম্বুলেন্স ডাকে তারা দুজনেই কেঁদে চলেছে,, আমাকে হসপিটালে ভর্তি করা হয়,,

দীর্ঘ ১৭ দিন পরে আমার জ্ঞান ফিরে,

— তিথি, তিথি, তুমি কোথায় গেলে //( চোখ বন্ধ করে)

— এই তো আমি জান, (আমাকে জরিয়ে ধরে তিথি)

তিথির দিকে দেখলাম মেয়েটা শুকিয়ে গেছে, কেমন কালো হয়ে গেছে, হয়তো খুব টেনশনে ছিলো,
হঠাৎ বাবা মা এলো,

— কেমন আছিস বাবা( মা)

— ভালো আছি মা ( আমি)

— তিথি তোর দিন রাত সেবা করে গেছে, সে একটু বিশ্রাম ও নেইনি, ( মা)

তিথির দিকে তাকিয়ে আমার কাঁন্না চলে এলো, আসলে মেয়েটা আমাকে খুব ভালোবাসে,

তিথি আমার সেবা করে একদম সুস্থ করে তুলেছে, আজ ১ মাস হলো হসপিটাল থেকে ছার পেয়েছি,,

আবারো শুরু হলো আমার ভালোবাসার বন্ধন,,

তিথির বয়স যখন ৫৯ বছর আমার তখন ৫৫ বছর, দুজনে ছাদে বসে আছি, সন্ধাবেলায় ডুবে জাওয়া সূর্য দেখছি,,

তিথি আমার হাতে হাত রাখলো

— কি হলো দেখছি তুমি আগের মতো ভালোবাসো না আমাকে, আমি বুড়ি হয়ে গেছি তাই, (তিথি)

–বলো কি তুমি আমার কাছে কখনোই বুড়ি হবে না। ( আমি)

এই ভাবে আমার ভালোবাসা চলতে থাকে,,
আসলে, পাশের মানুষ টা থাকলে, কষ্ট কে কখনোই কষ্ট মনে হয়না,,,

বেঁচে থাকুক এমন ভালোবাসা গুলো

বিঃদ্রঃ এই গল্পটা পুরো কাল্পনিক

______সমাপ্তি______

লেখক: আবদুর রহমান