“সিনিয়র গার্লফ্রেন্ড” পঞ্চম পর্ব

প্রকাশিত: ৫:২৭ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১৫, ২০২০

আজ আমার তিথির বিয়ের দিন,

আমার মনটা ভালো নাই, কারণ আমি চেয়েছিলাম পড়াশোনা শেষ করে বিয়ে করতে,, কিন্তু কি কপাল এখনি করতে হচ্ছে,,

অবশেষে পারিবারিক ভাবে বিয়েটা হয়ে গেলো,

আজ আমাদের বাসর রাত,

আমি ঘরে ঢুকলাম,
তিথি আমাকে সালাম দিলো, আমিও উত্তর দিলাম,

— আজ থেকে তোমাকে এতটা ভালোবাসা দিব তুমি কল্পনাও করতে পারবেনা ( তিথি)

–তাই ( আমি)

— আসো কাছে ( তিথি)

— না আপু আজ শরিল টা ভিষন দুর্বল, আজ ঘুমাবো ( আমি)

— ভাবছিলাম তোকে তুমি ছাড়া বলবো না,, কিন্তু মনে হচ্ছে বলতে হবে,, শাল আমি তোর কোন জন্মোর আপু লাগি ( তিথি প্রচন্ড রেগে আমার গলা চেপে ধরে,,)

— ছাড়ো মরে যাবো তো ( আমি)

সে ভিষন রেগেছে ছাড়ছেনা এদিকে আমার দম যায় যায় অবস্থা,

একপর্যায়ে আমি অজ্ঞান হয়ে পড়ি

তিথি৷ আমার পরা দেখে আতঙ্কিত ভালো চিল্লায়ে উঠে,,

— এই নিরব কি হলো তোমার উঠো প্লিজ ( তিথি)

— কথা কেন বলছো না নিরব, তোমাকে ছারা আমি বাঁচবো না নিরব, ( তিথি)

তিথির আতঙ্কিত শুনে বাবা বাবা মা দরজাই বারি দেই কি হয়েছে মা চিল্লাছিস কেন??

তারপর তিথি দরজা খুলে

— বাবা দেখেন ন নিরব কথা বলছেনা,, ( কেঁদে কেঁদে বলছে)

–চিন্তা করিস না মা কিছু হবে না নিরবের ( বাবা)

তারপর বাবা আমার নাকে মুখে পানি ছিটাই,

আমার জ্ঞান ফিরলো,
সাথে সাথে তিথি আমাকে জরিয়ে ধরলো,

— সরি নিরব, আমি খুব পঁচা তোমাকে কষ্ট দিলাম ( তিথি)

— আরে কাঁদছো কেন? আমি তো ঠিক আছো,, ( আমি)

এমন ভাবে ধরেছে যেন ছাড়বেনা।
তারপর বাবা মা এটা বুঝো মুচকি হেসে চলে গেলো,,

তিথি দরজা লাগিয়ে এলো,

— আমার জন্য তুমি কত কষ্ট পেলে জান, সরি আর তোমাকে কখনোই কষ্ট দিবো না, তোমার যা ইচ্ছে বলো,, ( তিথি আমার মাথা টিপছে আর বলছে)

তারপর আমি ঘুমিয়ে গেলাম মধ্যে রাতে ১ টা বেজে,,

–এই উঠো আজ আমাদের বাসর রাত, ( তিথি)

— তো কি করবো? ( আমি)

— তোমাকে কিছু করতে হবেনা আমি করছি(তিথি)
তারপর সেই রকম কিস করতে লাগলো,,

আমাকে কিছুই করতে দিচ্ছে না,,

–আচ্ছা জান আমাকে একটা বেবি দাও না ( তিথি)

— ছি! ছি! কি বলছো আমি তো একটা বেবি হয়ে আছি, আর আমি কি ভাবে বেবি দিবো ( আমি)

— ওত কিছু বুঝিনা আমার বেবি চাই ( তিথি)

— আচ্ছা হবে৷ এখন ঘুমাও ( আমি)

— তুমি কি আনরোমান্টিক, বাল একটু আদর করতে পারোনা?? ( তিথি)

— কি আদর করবো বলো?? আজ আমার মুড নাই, ( আমি)

— চুপ একদম আমার অধিকার আমি আদায় করে নিবো,, একপর্যায়ে জোর করে আমার সাথে রোমাঞ্চ করে,,

সারা রাত আমাকে ঘুমাতে দেইনি, ঘুমাইলে
বলেছে আজকের দিন টা আর পাবোনা৷, আজ ঘুমাতে দিবোনা তোমাকে,,

সকাল হয়ে গেলো, কিবল ঘুমটা এসেছিলো, তখনি তখনি তিথি এসে আমার আমার ঠোঁট কিস করে থাকে আমি বুঝতে না পারায় আমার দম বন্ধ হয়ে যাচ্ছে, তাই লাফিয়ে উঠি,,

–কি হলো এখন উঠলে কেন ঘুমাও,, (তিথি)

— তার জন্য আমার ঠোঁট চেপে ধরবা,, আমার তো দম শেষ হয়ে যাচ্ছিলো,, ( আমি)

–ওত কিছু বলতে হবেনা,, তারাতারি রেডি হও মা নিচে ডাকছে,, ( তিথি)

–আচ্ছা তুমি জাও আমি আসছি ( আমি)

তারপর ওয়াশরুম থেকে ফ্রেস হয়ে বের হলাম,, দেকলাম তিথি সাজছে,,

দেখে তো একদম পরি লাগছে,, আমি ক্রাস খেয়েছি,,

এই ভাবে ১৫ দিন চলে গেলো, আমাদের মাঝে ভালোবাসা খুব গভীর হয়েছি,,

একদিন তিথি বাইরে সপিং করার জন্য বাইনা ধরে, আমি রাজি হয়নি তাই বাবার কাছে বিচার দেই,, তাই বাধ্য হয়ে নিয়ে যেতে হয়,,

রিশকাতে করে এলাম দিয়ে সপিংকম্পেলেক্স এর সামনে নামলাম,,

ভিতরে ঢুকলাম, অনেক গুলো মেয়ে,, চার দিকে তাকাচ্ছি এটা দেখে তিথি রাগ করে,,

হঠাৎ লিমার সাথে দেখা,

— কি নিরব তুমি তিথি আপুকে এভাবে হাত ধরে ঘুরে বেরাচ্ছো কেন?? ( লিমা)

— না এমনি তিথি আপু বলল চলো একটু সপিং করে আছি,
তাই নিয়ে এলাম,, ( আমি)

আসলে লিমা জানেনা আমাদের বিয়ে হয়েছে,,

ঠাস্ ঠাস্ করে বসিয়ে দিলো তিথি আমার গালে,
কুত্তা নিজের বউকে বউয়ের পরিচয় দিতে এত কেন সরম,,

সবাই আমাদের দিকে তাকিয়ে আছে,,

আমি রাগ আর লজ্জা সহিতে না পেরে দৌরে সেখান থেকে বাইরে এলাম,, তারপর রাস্তা পার হচ্ছিলাম

হঠাৎ একটা ট্রাক এসে ভিষণ গতিতে ধক্কা মারে,

লেখক: আবদুর রহমান

“সিনিয়র গার্লফ্রেন্ড” শেষ পর্ব