“মুজিব-নেতা আমার” নাজিউর রহমান

প্রকাশিত: ১২:০৪ পূর্বাহ্ণ, আগস্ট ১৫, ২০২০

আমি ছিলাম শৃঙ্খলে বাধা,
তুমি “মিয়া ভাই” হয়ে
পথ উন্মোচন করে দিলে আমার।
আর আমি, পথ চলতে শিখলাম।

তোমার সামনে ছিলো হাজারো প্রশ্ন।
তুমি সেসব প্রশ্নের উত্তর দিলে,
সহজভাবে, সাবলীলভাবে। কারণ,
তোমার নামের অর্থ “উত্তরদাতা”!

আমি হতাশাগ্রস্ত ছিলাম।
হতাশাকে বিলীন করতে তোমার
বিশ্বস্ত হাত প্রয়োজন ছিলো আমার।
তোমার হুঙ্কার ছিলো আমার আশা।

তুমি এসে হাত রাখলে আমার
বুকের উপর, হাত রাখলে আমার বন্ধু হয়ে।
তুমি যে আমার বন্ধু।
বাংলার বন্ধু, “বঙ্গবন্ধু”!

আমার প্রয়োজন ছিলো একখানা কাব্যের।
আমি একজন কবি খুঁজছিলাম হন্য হয়ে।
তারপর, তুমি আসলে, কাব্য রচনা করলে।
কারণ, তুমি হলে “রাজনীতির কবি”!

আমার উপর হামলা হয়। আর তুমি,
আমাকে আগলে রাখো তোমার বুক দ্বারা।
শত্রুও তোমায় ভয় পায়। কারণ,
শত্রুর কাছেও তুমি “বিগ বার্ড”!

পথ চলতে আমার দরকার ছিলো,
একজন বিশ্বস্ত নেতার।
তারপর, তুমি আসলে, নেতা হলে।
আমি বলি, “মুজিব আমার নেতা”!

আমি শ্রেষ্ঠ। আমি চেয়েছিলাম,
একজন শ্রেষ্ঠ সন্তান আমার হোক!
তারপর, তুমি এলে সর্বশ্রেষ্ঠ হয়ে।
কারণ, তুমি সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালী”!

আমি মুক্ত হলাম। আমার পরিচয় হলো।
আমি বাংলাদেশ! আমি বাঙালী জাতি!
সবদিক থেকে বেড়ে গেলো আমার মান।
কারণ,তুমি জাতির জনক শেখ মুজিবুর রহমান!

লেখক: নাজিউর রহমান রাকিব